Advertise

ওয়াভেল পরিকল্পনা কি এবং কেন ব্যর্থ হয়েছিল?

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে ইংল্যান্ডের ওপর দিয়ে যে ঝড় বয়ে গিয়েছিল তাতে আর্থ-সামাজিক দিক নিয়ে ইংল্যান্ড এক বড় বিপর্যয়ের সম্মুখীন হয়। এইরূপ অবস্থায় ভারতে সাম্রাজ্য রক্ষা করার মতাে সামর্থ্য ইংল্যান্ডের আর ছিল না। তদানীন্তন ভাইসরয় লর্ড ওয়াভেল ভারতের সঙ্গে সমঝােতা ও ক্ষমতা হস্তান্তরের প্রেক্ষাপট হিসাবে ১৯৪৫ খ্রিস্টাব্দের জুন মাসে কংগ্রেস ও মুসলিম লিগের কাছে একটি পরিকল্পনা পেশ করেন, এটি ওয়াভেল পরিকল্পনা নামে পরিচিত।
ওয়াভেল পরিকল্পনা কি
ওয়াভেল পরিকল্পনা: ওয়াভেল পরিকল্পনার মূল বক্তব্যগুলি ছিল -
(ক) ভারতের জন্য নতুন সংবিধান বা শাসনতন্ত্র রচনার আগে একটি অন্তর্বর্তীকালীন সরকার গঠন করা হবে।
(খ) প্রস্তাবিত সরকারের কেন্দ্রীয় শাসন পরিষদে হিন্দু ও মুসলিমদের সমসংখ্যক প্রতিনিধি থাকবে।
(গ) কেন্দ্রীয় শাসন পরিষদে গভর্নর জেনারেল ও সৈন্যাধ্যক্ষ ছাড়া সকল সদস্যই হবেন ভারতীয়।
(ঘ) ভারতীয়দের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তরের আগে পর্যন্ত দেশের প্রতিরক্ষার দায়িত্ব একজন ব্রিটিশ সেনাপতির ওপর ন্যস্ত থাকবে।

১৯৪৫ খ্রিস্টাব্দের ২৫ জুন বড়ােলাট লর্ড ওয়াভেলের পরিকল্পনার বাস্তব রূপদানের উদ্দেশ্যে সিমলায় একটি সর্বদলীয় বৈঠকে আহবান করেন। জিন্নাহ বলেন যে, হিন্দু ও মুসলিম হল দুই পৃথক জাতি। এরই ভিত্তিতে পাকিস্তান দাবী করা হয়েছে। এই প্রশ্নটি কখনও গণভােটের সিদ্ধান্তের ওপর ছেড়ে দেওয়া যেতে পারে না। সুতরাং গান্ধী-জিন্নাহ আলােচনা ভেঙে যায়। লর্ড ওয়াভেল সিমলা বৈঠকে বলেন যে, কংগ্রেস একটি ধর্মনিরপেক্ষ জাতীয় দল নয়, তা হল হিন্দুদের দল এবং লীগ হল মুসলিমদের একমাত্র মুখপাত্র। মুসলিমদের ব্যাপারে কংগ্রেসের কোন বক্তব্য থাকতে পারে না। কংগ্রেস লর্ড ওয়াভেল ও মুসলিম লীগের বক্তব্যর প্রতিবাদ করলে লর্ড ওয়াভেল পরিকল্পনা ব্যর্থ হয়।