পল্লব বংশ।

author photo
- Saturday, March 09, 2019
advertise here

পল্লব সাম্রাজ্য।

খ্রিষ্টীয় তৃতীয় শতকের প্রথমার্ধে সাতবাহন সাম্রাজ্যর পতনের পর কৃষ্ণা নদীর তীরে কাঞ্চি নগরকে কেন্দ্র করে পল্লব রাজ্য প্রতিষ্ঠিত হয়। পল্লবদের উৎপত্তি বা আদি পরিচয় সম্পর্কে ঐতিহাসিকরা একমত নন। অনেকে পল্লবদের বাসস্থান উত্তর ভারত বলেছেন।


আদি ইতিহাস:

পল্লব বংশের প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন শিবস্কন্দবর্মন। কৃষ্ণা নদী থেকে বেলারি জেলা পর্যন্ত তার রাজ্য বিস্তৃত ছিল। কাঞ্চি ছিল তার রাজধানী। পল্লব বংশের রাজা বিষ্ণুগোপ-কে গুপ্ত সম্রাট সমুদ্রগুপ্ত পরাজিত করে। তিনি সম্ভবত ৩৫০ থেকে ৩৭৫ খ্রিস্টাব্দ পর্যন্ত রাজত্ব করেন।

সিংহবিষ্ণু:

৫৭৫ খ্রিস্টাব্দে সিংহবিষ্ণু কাঞ্চির সিংহাসনে বসেন। কৃষ্ণা থেকে কাবেরী পর্যন্ত তার আধিপত্য ছিল। তার আমলে মহাবলীপুরম শিল্পচর্চার এক বিখ্যাত কেন্দ্রে পরিণত হয়। কিরাতার্জুনীয়ম গ্রন্থের লেখক বিখ্যাত কবি ভারবি সিংহবিষ্ণু-র সভাকবি ছিলেন।

প্রথম মহেন্দ্রবর্মন:

সিংহবিষ্ণুর পুত্র প্রথম মহেন্দ্রবর্মন ৬০০ খ্রিস্টাব্দে রাজা হন। তার আমলে পল্লব-চালুক্য সংঘর্ষ তীব্র আকার ধারণ করে। তুঙ্গভদ্রা নদীর উত্তরে ছিল চালুক্য এবং দক্ষিণে পল্লব রাজ্য। প্রথম মহেন্দ্রবর্মন চালুক্য-রাজ দ্বিতীয় পুলকেশী-র হাতে পরাজিত হন এবং বেঙ্গী প্রদেশটি বে-দখল হয়। প্রথম মহেন্দ্রবর্মন ত্রিচিনোপল্লি, আর্কট ও চিঙ্গলপেট জেলায় মন্দির নির্মাণ করেন। প্রথম মহেন্দ্রবর্মন প্রথম পাহাড় কেটে মন্দির নির্মাণ শুরু করেন। প্রথম মহেন্দ্রবর্মন রচিত ব্যঙ্গ-নাটক "মত্তবিলাস প্রহসন" সংস্কৃত ভাষায় রচনা করেন। প্রথম মহেন্দ্রবর্মন চিত্রকলার পৃষ্ঠপোষক ছিলেন। প্রথম মহেন্দ্রবর্মন "গুণভার" উপাধি ধারণ করে। প্রথম মহেন্দ্রবর্মনকে জনসাধারণ "বিচিত্রচিত্র" বলে অভিহিত করত। বহু মন্দির নির্মাণের জন্য প্রথম মহেন্দ্রবর্মন "চৈত্যকারি" বলে পরিচিত ছিলেন।



প্রথম নরসিংহবর্মন:

প্রথম নরসিংহবর্মন "মহামল্ল" উপাধি ধারণ করেন। তিনি পল্লব বংশের শ্রেষ্ট রাজা ছিলেন। প্রথম নরসিংহবর্মন চালুক্য-রাজ দ্বিতীয় পুলকেশীকে পরাজিত করে চালুক্য-রাজধানী বাতাপি অধিকার করেন (৬৩২ খ্রি:) এবং "বাতাপিকোন্ড" উপাধি নেন।

প্রথম পরমেশ্বরবর্মন:

প্রথম নরসিংহবর্মনের পুত্র দ্বিতীয় মহেন্দ্রবর্মন দু-বছর রাজত্ব করার পর প্রথম পরমেশ্বরবর্মন সিংহাসনে বসেন। চালুক্য-রাজ দ্বিতীয় পুলকেশীর পুত্র প্রথম বিক্রমাদিত্য চালুক্য-রাজ্য থেকে সকল পল্লব সেনা বিতাড়িত করেন। প্রথম পরমেশ্বরবর্মন কাঞ্চিতে একটি সুরম্য শিবমন্দির নির্মাণ করেন।

দ্বিতীয় নরসিংহবর্মন:

প্রথম পরমেশ্বরবর্মনের পুত্র দ্বিতীয় নরসিংহবর্মন "রাজসিংহ" উপাধি নিয়ে সিংহাসনে বসেন। তার রাজত্বকালে পল্লব স্থাপত্য ও ভাস্কর্যের ক্ষেত্রে যে নতুন শিল্প রীতির বিকাশ ঘটে তার নাম "রাজসিংহ রীতি"। দ্বিতীয় নরসিংহবর্মনের সভাকবি ছিলেন বিখ্যাত সংস্কৃত পণ্ডিত দন্ডী।


দ্বিতীয় নন্দীবর্মন:

রাজা দ্বিতীয় নন্দীবর্মন পল্লবমল্ল নামে পরিচিত। চালুক্য-রাজ দ্বিতীয় বিক্রমাদিত্য নন্দীবর্মন-কে পরাজিত করে কাঞ্চি দখল করে এবং চিত্রমায়া-কে সিংহাসনে প্রতিষ্ঠা করেন। চিত্রমায়া প্রায় ২০ বছর পল্লব রাজ্য শাসন করে। নন্দীবর্মনের এক সেনাপতি চিত্রমায়া-কে হত্যা করলে নন্দীবর্মন পুনরায় পল্লব সিংহাসনে বসেন। তিনি চালুক্য-রাজ কীর্তিবর্মন-কে পরাজিত করেন। দ্বিতীয় নন্দীবর্মন মুক্তেশ্বরের মন্দিরটি নির্মাণ করেন।

পল্লব বংশের পতন:

নন্দীবর্মনের মৃত্যুর পর চোল ও পাণ্ড্যদের আক্রমণ এবং সামন্তদের বিরোধিতায় পল্লব শক্তি দুর্বল হয়ে পড়ে। চোল-সামন্ত আদিত্য ৮৯১ খ্রিষ্টাব্দে শেষ পল্লব-রাজ অপরাজিতবর্মন-কে পরাজিত করে পল্লব শক্তিকে ধ্বংস করে এবং দক্ষিণ ভারতে চোল সাম্রাজ্য প্রতিষ্ঠিত হয়।

ট্যাগ:
Advertisement advertise here