সন্দ্বীপের কৃষক বিদ্রোহ।

author photo
- Tuesday, January 22, 2019
advertise here

সন্দ্বীপের বিদ্রোহ (Sandwip rebellion)।


ভূমিরাজস্ব ব্যবস্থার ত্রুটি, সুদখোর মহাজনদের শোষণ, ঔপনিবেশিক শোষণ এবং কৃষক ও উপজাতিদের উপর দমন নীতি প্রভুতি কারণে ও এর প্রতিবাদে বিভিন্ন সময়ে কৃষক, শ্রমিক, তাঁতি, কারিগর, জেলে, মুচি, মেথর, ব্যবসায়ী, শিল্পী, ও মধ্যবিত্ত শ্রেণির মানুষ বিচ্ছিন্ন ভাবে হলেও সর্বভারতীয় ক্ষেত্রে ব্রিটিশ বিরোধী সংগ্রামে সামিল হয়েছিল।

১৭৬৯ সালে নোয়াখালি জেলার দরিদ্র মুসলিম কৃষকদের বিদ্রোহ সন্দীপ বিদ্রোহ নামে পরিচিত। বঙ্গোপসাগরে অবস্থিত নোয়াখালি জেলার অন্তর্গত কয়েকটি দ্বীপের সমষ্টি হল সন্দীপ অঞ্চল । সন্দ্বীপের অধিকাংশ অধিবাসী ছিল মুসলিম। আবু তোরাব চৌধুরী এই বিদ্রোহে নেতৃত্ব দেন ও নিহত হন। ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির গভর্ণর ভেরেলেস্ট সাহেবের বেনিয়ান গোকুল ঘোষালকে সন্দ্বীপের জমি জরিপের ও রাজস্ব ধার্য করার জন্য নিয়োগ করে। এর অত্যাচারের ফলে সন্দ্বীপের কৃষকরা বিদ্রোহী হয়ে ওঠে। এই বিদ্রোহে কৃষকরা পরাজিত হয়।

আবু তোরাব চৌধুরী:

আবু তোরাব চৌধুরী ছিলেন সন্দীপ পরগণার জমিদার চাঁদ খাঁর প্রপৌত্র। চাঁদ খাঁর মৃত্যুর পর পুত্র জুনদ খাঁ আট অন্য চার গণ্ড দুই কড়া জমিদারী পান। জুনদ খার মৃত্যুর পর তার পুত্র মহম্মদ রাজা জমিদার হন। এবং তার মৃত্যুর পর নিজ পুত্র আবু তোরাব চৌধুরী উত্তরাধিকারী হন।

১৭৬৩ সালে ঠক ও ষড়যন্ত্রকারী গোকুল ঘোষাল ছলে বলে কৌশলে সন্দ্বীপ পরগণার বার আনা জমিদারী আত্মসাৎ করে অত্যাচার, জুলুম সহ্য করতে না পেরে আবু তোরাব চৌধুরী সন্দ্বীপের সমস্ত জমিদারদের সংগঠিত করে তার বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলেন।


১৭৬৭ সালে আবু তোরাব চৌধুরীর সাথে ইংরেজদের যুদ্ধ বাঁধে। মেজর গ্রান্ট, মেজর নলিকিন্স, ক্যাপ্টেন এলারকার, ক্যাপ্টেন প্লাউডেন ও মাস্তেল এর নেতৃত্বে বিশাল ও ইংরেজ বাহিনীর সাথে আবু তোরাব চৌধুরী ও তাঁর সেনাপতি মালকাম সিং এর নেতৃত্বাধীন অপেক্ষাকৃত ক্ষুদ্র বাহিনীর সাথে সন্দ্বীপের হরিশপুর গ্রামে যুদ্ধ হয়। ঐ যুদ্ধে আবু তোরাব চৌধুরী বীরত্বের পরকাষ্ঠা প্রদর্শন করে সম্মুখ সমরে মৃত্যু বরণ করেন। এটাই সন্দ্বীপের শেষ স্বাধীনতা সংগ্রাম ছিল। আবু তোরাব চৌধুরীর ভগ্নিপতি মহম্মদ মুরাদ চৌধুরী সৈন্যদলের কয়েকজন জমাদারসহ ইংরেজদের সাথে যোগ দেয় তাঁর এক জমাদারের হস্তে প্রাণ ত্যাগ করেন। বীর আবু তোরাব চৌধুরীর মৃত্যুর সাথে সাথে সন্দ্বীপে দিলাল রাজার বংশধর বিলুপ্ত হয়।
Advertisement advertise here