রংপুর বিদ্রোহ।

author photo
- Tuesday, January 22, 2019
advertise here

রংপুর কৃষক বিদ্রোহ (Rangpur Peasant Revolt)।


** কোম্পানী নিযুক্ত ইজারাদার দেবী সিংহের বিরুদ্ধে সংগঠিত রংপুর বিদ্রোহ ভারতের ইতিহাসে এক গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা। ভারতের ব্রিটিশ প্রশাসনের একটি লক্ষ্য ছিল অতি অল্প খরচে সর্বোচ্চ রাজস্ব আদায়। ফলে ওয়ারেন হেস্টিংস ভূমি রাজস্ব আদায় ও মূল্যায়ণ জন্য একটি কমিটি অফ সার্কিট গঠন করে। সর্বাধিক পরিমাণে রাজস্ব প্রদানের যিনি প্রতিশ্রুতি দিতেন তাকে জমি বন্দোবস্ত দিতেন। এই ব্যবস্থাই ইজারাদাররা কোম্পানিকে প্রদানের জন্য একটি সুনির্দিষ্ট রাজস্ব আদায় করতেন। পাশাপাশি ইজারাদাররা কৃষকের খাজনা সর্বাধিক হারে বাড়িয়ে তোলার চেষ্টা করতেন এবং এই জন্য কৃষকদের ওপর বলপ্রয়োগ চলতো। এই ব্যবস্থায় ক্ষতিগ্রস্ত হয় কৃষক শ্রেণী।


** দেবী সিংহ ছিলেন অষ্টাদশ শতাব্দীর একজন ইজারাদার। তিনি পশ্চিম ভারত থেকে মুর্শিদাবাদ এসেছিলেন এবং কোম্পানির ইজারাদার হন। তিনি পূর্ণিয়া (বিহার) জেলা থেকে রাজস্ব আদায়ের অধিকার লাভ করে এবং শাসক হন। দেবী সিংহ নায়েব

নাজিম রেজা খানকে ১৬ লক্ষ টাকা দিয়ে এই অধিকার লাভ করে। দেবী সিংহের সরকার পূর্নিয়াতে একটি সন্ত্রাসের রাজত্ব প্রতিষ্ঠা করে। তার নিরপরাধ জনসাধারণের ওপর মাত্রাতিরিক্ত অত্যাচারের ফলে জনগণ পূর্ণিয়া ছেড়ে চলে যেতে থাকে। ফলে ওই অঞ্চল পরিত্যাক্ত হয়। ফলে হেস্টিংস তাকে বরখাস্ত করে। কিন্তু হেস্টিংকে অর্থ দিয়ে বশিভূত করে এবং প্রাদেশিক রেভিনিউ বোর্ডের সদস্য হন। ১৭৮০ সালে তিনি মুর্শিদাবাদের একজন ছোটো রাজা রাধানাথ সিংহের দেওয়ান নিযুক্ত হন। ১৭৮১ সালে দেবী সিংহ রংপুর ও দিনাজপুরের প্রতিবেশী পরগণার ইজারা ক্রয় করেন।

** রংপুর ও দিনাজপুরে রাজস্বের হার অতিরিক্ত পরিমাণে বৃদ্ধি করে। সাধারণ রাজস্ব ছাড়াও দেবী সিংহের প্রতিনিধিরা নানা প্রকার কর আরোপ করত যা সাধারণ মানুষের জীবনকে আরও দুর্দশাপূর্ণ করে তুলেছিল।রাজস্বের জন্য নিষ্ঠুর অত্যাচার কৃষকদের শেষপর্যন্ত জমিদারের কাছে যেতে বাধ্য করতো। ফলে কৃষকদের দুরাবস্থা দেখা দেয়।


** এই ধরনের পরিস্থিতিতে রংপুরের কৃষক বিদ্রোহীদের আর কোন পথ খোলা ছিল না। ১৭৮৩ সালে ১৮ ই জানুয়ারি বিভিন্ন গ্রামের কৃষক সম্প্রদায় টেপা গ্রামে মিলিত হয় এবং দেবী সিংহের রাজত্বের অবসানের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে। বিদ্রোহীরা নিজেদের একটি স্বাধীন সরকার গঠন করে। বিদ্রোহীদের সরকার পাঁচ সপ্তাহ ছিল। রংপুর বিদ্রোহীরা নুরুল উদ্দিনকে নেতা এবং ওপর একজন কৃষক দয়ারাম শিলকে তার সহযোগী হিসাবে নিযুক্ত করে। ১৭৮৩ সালে ১৮ ই জানুয়ারি রংপুরের বিদ্রোহের সূচনা হয় ।

পড়ুন: বাংলার কৃষক বিদ্রোহ।
** নুরুল উদ্দিন স্থানীয় কৃষকদের উপর এক নিষেধাজ্ঞা জারী করে দেবী সিংহকে খাজনা দিতে নিষেধ করে। কৃষকরা জনগণের কাছ থেকে চাঁদা তুলে একটি তহবিল গঠন করে। রংপুর বিদ্রোহ কোচবিহার ও দিনাজপুরে প্রসারিত হয়। রাজকোষ, কাছারি এবং স্থানীয় জেলগুলি আক্রান্ত হয়েছিল এবং দেবী সিংহের প্রতিনিধিদের হত্যা করা হয়। রাজস্ব প্রদানে অসমর্থ বন্দী কৃষকদের মুক্ত করে ছিল। নুরুল উদ্দিনের সারা জীবন ধরে যে অভিজ্ঞতা অর্জন করেন তা দ্বারা ইংরেজদের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করে।

** অসংখ্য কৃষক লাঠি, তীর, বর্ষা, বল্লম নিয়ে প্রতিরোধ আন্দোলনে সামিল হন। মঙ্গলঘট যুদ্ধে রংপুর বিদ্রোহের নেতা নরুল উদ্দিন আহত হন। দয়ারাম শিলকে হত্যা করা হয়। শেষ পর্যন্ত বিদ্রোহীরা পাটগ্রামের যুদ্ধে পরাজিত হয়।



রংপুর বিদ্রোহের কারণ:

(১) জমিদার বা প্রজাদের ওপর উচ্চহারে ভুমিরাজস্ব আরোপ করা হত।

(২) সময় মতো রাজস্ব প্রদানে ব্যর্থ জমিদার বা প্রজাদের ওপর অনেক প্রকার অত্যাচার চালানো হত।

(৩) খাজনা অনাদায়ে অনেক জমিদার ও ওই অঞ্চলের অনেক মহিলা জমিদারের জমিদারি স্বত্ব অতি সামান্য টাকায় কিনে নেওয়া হত।

(৪) রাজস্ব অনাদায়ে বিদ্রোহী কৃষকদের কারাগারে এনে অমানুষিক বেত্রাঘাত ও পরিবারের প্রতি ঘৃণা প্রকাশ করা হত।

(৫) অজন্মা খরা অথবা যে-কোনো প্রাকৃতিক দুর্যোগের জন্য শস্যহানী হলেও অসহায় কৃষকদের বা জমিদারদের খাজনা থেকে রেহাই দেওয়া হত না।

রংপুর বিদ্রোহের ফলাফল:


১) প্রথম থেকেই দেবী সিংহের নিষ্ঠুরতার বিরুদ্ধে বিদ্রোহীরা একটি ঐক্যবদ্ধ প্রতিরোধ গড়ে তুলে। তারা শ্রেণী, জাতী এবং ধর্ম। প্রভূতি উপেক্ষা করে একটি শক্তিশালী প্রতিরোধী দল গড়ে তোলে। হিন্দু এবং মুসলিম উভয়েই তাদের সাধারণ শত্রুদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হয়েছিল।

পড়ুন: কৃষক বিদ্রোহের কারণ।
২) এটি ছিল প্রকৃতপক্ষে একটি কৃষক বিদ্রোহ যদিও তার নেতৃত্বে এসেছিল গ্রামপ্রধান বা বসুনিয়াদের কাছ থেকে। এরা সাধারণ জনতার আস্থা অর্জন করেছিল।

৩) রংপুর বিদ্রোহের তাপর্যকে অনেক সময় অতিরঞ্জিত করা হয়ে থাকে। এই বিদ্রোহ ইজারাদারদের কবল থেকে কৃষকদের মুক্ত করতে পেরেছিল। ইংরেজ সেনাবাহিনীর দমননীতি সত্ত্বেও বিদ্রোহীরা আত্মসমর্পণ করতে অস্বীকার করেছিল এবং তারা আমৃত্যু তাদের দাবীগুলি প্রতি অনুগত ছিল।
Advertisement advertise here